Author Topic: কোরান হাদিস রঙ্গঃ  (Read 2867 times)

0 Members and 1 Guest are viewing this topic.

Jupiter Joyprakash

  • Administrator
  • Full Member
  • *****
  • Posts: 175
  • Karma: +0/-0
    • View Profile
কোরান হাদিস রঙ্গঃ
« on: January 28, 2014, 04:16:10 AM »
কোরান হাদিস রঙ্গঃ
ধর্মের বাণী অতিশয় ফানি। দুচোখ খুলে পড়লে ধর্মপুস্তকের মধ্যে এতই সব হাস্যকর কথাবার্তা পাওয়া যায় যে গোপাল ভাঁড়, মোল্লা নাসিরুদ্দীন, তেনালীরামন, বীরবল ইত্যাদিরা সকলেই শিশু মনে হয়। কিন্তু সমস্যা হল এত সব হাসির কথা থাকার পরেও লোকে তা পড়ে হাসতে ভয় পায়। কারণ ঐসব পুস্তকের গোড়াতেই "হাসতে মানা" নোটিশ দেওয়া থাকে। যেরকম রেলগাড়িতে নোটিশ থাকে
বিনা টিকিটে ভ্রমণ করা অপরাধ

 আর তার পরেই স্বর্গীয় আইনের অমুক তমুক ধারা উল্লেখ করে বলে দেওয়া থাকে যে এই আইন অনুসারে হাসার শাস্তি হবে তিম মাস জেল অথবা সাত বার ফাঁসি (অথবা দুইই একত্রে)।

যাঁরা এইসব আইন কানুন মেনে চলতে চান তাঁরা সাবধানে পড়বেন। হেসে ফেললে তার দায়িত্ব একান্তই আপনার।

Jupiter Joyprakash

  • Administrator
  • Full Member
  • *****
  • Posts: 175
  • Karma: +0/-0
    • View Profile
Re: কোরান হাদিস রঙ্গঃ
« Reply #1 on: January 28, 2014, 04:18:05 AM »
রঙ্গ ১
আল্লা বলেছে "আমি কোরান কে সহজ করে অবতীর্ণ করেছি, যাতে সকলেই তা বুঝতে পারে।"
কিন্তু মোল্লা-মৌলভীদের মতন গ্যানীরাও কোরান বুঝতে শানে-নাজুল, তাফসীর ইত্যাদী খুঁজে বেড়ায়। সবচেয়ে মজা হল, কোরানের মাথার উপরে লেখা 'আলিফ লাম মীম' এর অর্থ কেওই বোঝে না।

Jupiter Joyprakash

  • Administrator
  • Full Member
  • *****
  • Posts: 175
  • Karma: +0/-0
    • View Profile
Re: কোরান হাদিস রঙ্গঃ
« Reply #2 on: January 28, 2014, 04:25:10 AM »
রঙ্গ ২| আল্লার বান্দা বুদ্ধিমান
সুরা আল কাহাফঃ

৬৫ তারপর তাঁরা (মূসা ও তাঁর সাথী) আমাদের মধ্যে এক বান্দাকে দেখলেন যাকে আমরা করূণা ও জ্ঞান দান করেছিলাম
৬৬ মূসা তাঁকে বললেন, আমি কি আপনাকে অনুসরণ করতে পারি এই শর্তে যে আপনি আমাকে সঠিক পথ দেখাবেন?
৬৭ তিনি (সেই বান্দা) বললেন, “তুমি আমার সাথে ধৈর্য ধরে থাকতে পারবে না
৬৮ তুমি কিভাবে সেই বিষয়ে ধৈর্য রাখবে যে ব্যাপারে তুমি কিছুই জানোনা
৬৯ তিনি (মূসা) বললেন আপনি আমাকে এখনই ধৈর্যশীল পাবেনকোনো বিষয়ে আমি আপনাকে অমান্য করব না
৭০ তিনি (সেই বান্দা) বললেন, তবে তুমি আমাকে কোনো প্রশ্ন করতে পারবে নাযদি না আমি নিজে কিছু প্রকাশ করি

৭১ তাঁরা যাত্রা করলেনপথে তাঁরা একটি নৌকায় চড়লেন তখন সেটিতে একটি ছিদ্র করে দিলেনমূসা বললেন এটি আপনি কেন করলেন? আপনি কি যাত্রীদের ডুবিয়ে দিতে চান?
৭২ তিনি বললেন, আমি কি বলি নি যে তুমি ধৈর্য ধরতে পারবে না?
৭৩ মূসা বললেন, অপরাধ নেবেন না, আমি ভুলে গিয়েছিলাম

৭৪ এর পর চলতে চলতে পথে তাঁরা একটি বালকের দেখা পেলেনতিনি সেই বালককে মেরে ফেললেনমূসা বললেন, আপনি কি একজন নির্দোষকে হত্যা করলেন না?
৭৫ তিনি বললেন আমি কি বলিনি তুমি ধৈর্য রাখতে পারবে না?”


৮০ বালকটি সম্পর্কে- তার পিতামাতা ছিল মুমিন, আর আমরা আশঙ্কা করেছিলাম সে (বালক ) অবিশ্বাস আর বিদ্রোহ দিয়ে তাদের ব্যতিব্যস্ত করবে
৮১ তাই আমরা চেয়েছিলাম প্রভু যেন তার বদলে দেন পবিত্রতায় এর চেয়ে ভালো ও ভক্তি ভালোবাসায় পূর্ণ অন্য সন্তান



=============================
মুহম্মদের চাচা আবু তালিব কোনোকালে ইসলাম কবুল করেন নাইকিন্তু তিনি তাঁর নিজের ধর্মের বিরোধী ভাতিজার জন্য যত রকম ভাবে সম্ভব কাজ করেছেন যাতে ভাতিজা তার নিজের মত স্বাধীনভাবে প্রচার করতে পারে
অন্যদিকে আল্লার বান্দা যদি আশঙ্কা করে যে কোনো বালক ভবিষ্যতে অবিশ্বাস প্রচার করতে পারে তবে তাকে খুন করে ফেলাও সম্ভব
সবচেয়ে মজার ব্যাপার হচ্ছে যে সর্বগ্যানী আল্লা আবার আশঙ্কা করে। নিশ্চিত ভাবে কিছু বলতে পারে না।

এতদ্বারা প্রমাণিত হল আল্লার বান্দারা ছাড়া সকলেই বেকুব

Jupiter Joyprakash

  • Administrator
  • Full Member
  • *****
  • Posts: 175
  • Karma: +0/-0
    • View Profile
Re: কোরান হাদিস রঙ্গঃ
« Reply #3 on: January 28, 2014, 04:29:07 AM »
অবিশ্বাসীরা (অমুসলিম) খায় সাতটি অন্ত্র দিয়ে
একজন (ইসলামে) বিশ্বাসী খায় একটি অন্ত্র দিয়ে
একজন অবিশ্বাসী খায় সাতটি অন্ত্র দিয়ে


প্রমাণঃ-
একদা নবী একজন অমুসলিমকে নিমন্ত্রণ করলেননবী আদেশ  দিলেন সেই অতিথির জন্য ছাগলের দুধ দুয়ে আনতেএক এক করে সাতটি ছাগলের দুধ সেই অতিথি খেয়ে ফেললেন
পরের দিন সকালে সেই ব্যক্তি ইসলাম গ্রহণ করলেনমুহম্মদ তার জন্য আবার ছাগলের দুধ আনালেনসেই ব্যক্তি একটি ছাগলের দুধ পান করলেনআরেকটি ছাগলের দুধ দুয়ে এনে দিলেও সেটি তিনি শেষ করতে পারলেন না
এর পর মুহম্মদ বললেন একজন বিশ্বাসী পান করে একটি অন্ত্র দিয়েআর একজন অবিশ্বাসী পান করে সাতটি অন্ত্র দিয়ে
এতদ্বারা প্রমাণিত হইল.........
১) কারো যদি খিদে কমে গিয়ে থাকে তবে সেরা চিতিৎসা হল (আল্লায়)অবিশ্বাসী হওয়া
২) (ইসলামে)অবিশ্বাসই দুর্ভিক্ষের প্রধান কারণ

 
sahih-muslim-book-023 Number 5113:
Ibn ‘Umar reported Allah’s Messenger (may peace be upon him) as saying that a non-Muslim eats in seven intestines whereas a Muslim eats in one intestine.

Book 23, Number 5114:
This hadith has been reported on the authority of Ibn ‘Umar but with a different chain oi transmitters.

Book 23, Number 5115:
Nafi’ reported that Ibn ‘Umar saw a poor man. He placed food before him and he ate much. He (Ibn ‘Umar) said: He should not come to me. for I heard Allah’s Messenger (may peace be upon him) as saying that the non-Muslim eats in seven intestines.

Book 23, Number 5116:
Ibn ‘Umar reported Allah’s Messenger (may peace be upon him) as saying: A believer eats in one intestine, whereas a non-believer eats in seven intestines.

Book 23, Number 5117:
This hadith has been transmitted on the authority of Jabir.

Book 23, Number 5118:
Abu Musa reported Allah’s Messenger (may peace be upon him) as saying: A believer eats in one intestine, whereas a non-believer eats in seven intestines.

Book 23, Number 5119:
This hadith has been narrated on the authority of Abu Huraira with a different chain of transmitters.

নাস্তিকেরা নিশ্চয় জানতে চাইবে এই জ্ঞান কোথা থেকে পাওয়া গেল। পরীক্ষা না করেই এসব কথা বললে তারা কখনোই বিশ্বাস করবে না। তাই তাদের জন্য বিস্তারিত দেওয়া আছে এখানে।
Book 23, Number 5120:

Abu Huraira reported that Allah’s Messenger (may peace be upon him) invited a non-Muslim. Allah’s Messenger (may peace be upon him) commanded that a goat be milked for him. It was milked and he drank its milk. Then the second one was milked and he drank its milk, and then the other one was milked and he drank its milk. till he drank the milk of seven goats. On the next morning he embraced Islam. And Allah’s Messenger (may peace be upon him) commanded that a goat should be milked for him and he drank its milk and then another was milked but he did not finish it, whereupon Allah’s Messenger (may peace be upon him) said: A believer drinks In one intestine whereas a non-believer drinks in seven intestines.

Jupiter Joyprakash

  • Administrator
  • Full Member
  • *****
  • Posts: 175
  • Karma: +0/-0
    • View Profile
Re: কোরান হাদিস রঙ্গঃ
« Reply #4 on: January 29, 2014, 05:28:51 AM »
 জ্ঞান ও ঈমান থাকে কলসিতেঃ

আল্লার রাসুল কহিলেন, একদিন যখন আমি মক্কায় ছিলাম আমার ঘরের ছাদ খুলে জিব্রাইল নেমে এলেন। তিনি আমার বুক খুলে ভিতরটি জমজমের পানির দ্বারা ধুয়ে দিলেন। তারপর জ্ঞান ও ঈমান ভর্তি সোনার এক পাত্র নিয়ে সেগুলি আমার বুকের মধ্যে ঢেলে দিয়ে বুক বন্ধ করে দিলেন। এরপর তিনি আমার হাত ধরে ঊঠিয়ে আমাকে প্রথম স্বর্গে নিয়ে গেলেন।

এতদ্বারা প্রমাণিত হল
১) জ্ঞান ও ঈমান বস্তায় বা কলসিতে করে নিয়ে বেড়ানো যায়।
২) আল্লা কারোকে জ্ঞান বা ঈমান দিতে চাইলে ফেরেস্তারা কেউ সেগুলো এনে বুক চিরে ভেতরে ঢেলে দেয়।

 এই দুনিয়ায় নাস্তিকেরা বৃথাই জ্ঞান খুজে বেড়ায়, আর আস্তিকেরা বৃথাই ঈমান খোঁজে। এসব বস্তু আসে সাত আসমান পার থেকে কলসিতে করে। যার বুক চিরে ফেরেস্তা জ্ঞান বা ঈমান ভরে দেয়না সে বেকুব ও বেইমান থেকেই যাবে।